দুয়ো শোনা মেসির সমর্থনে গ্যালারিতে নেইমার-সুয়ারেজ!

সংবাদবিডি ডেস্ক :

পিএসজি ক্যারিয়ারের শেষ ধাপে আছেন আর্জেন্টাইন অধিনায়ক লিওনেল মেসি। শেষ সময়টাও চলছে বেশ তিক্তভাবে। অনুমতি ছাড়া সৌদি আরব ভ্রমণে গিয়ে এই বিশ্বজয়ী মহাতারকা কড়া শাস্তি পেয়েছিলেন। যদিও দু’পক্ষের সমঝোতায় সেই শাস্তি এক ম্যাচে কমে এসেছে। তবে সেই আলোচনায় নিশ্চয়ই থাকার কথা নয় পিএসজির সমর্থক ফোরাম ‘আল্ট্রাসে’র। তারা মেসি-নেইমারসহ বেশ কয়েকজন ফুটবলারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করেছিলেন। মাঠে নেমেও তাদের দুয়ো শুনেছেন মেসি। তবে এই তারকাকে সমর্থন দিতে গ্যালারিতে ছিলেন ইনজুরিতে থাকা সতীর্থ নেইমার।

শুধু নেইমারই নন, ভিডিওকলে সেখানে তিনি উরুগুইয়ান স্ট্রাইকার লুইস সুয়ারেজকেও যুক্ত করেন। মনে হচ্ছিল যেন বার্সেলোনার সেই বিখ্যাত এমএসএন ত্রয়ী আবার এক হয়েছে। এই তিন বন্ধুর আক্রমণভাগ নাড়িয়ে দিত যেকোনো পরাশক্তি দলের ডিফেন্সকে।

শত্রুভাবাপন্ন ঘরের মাঠে প্রত্যাবর্তনের ম্যাচ খেলতে নেমেছিলেন আর্জেন্টাইন মহাতারকা লিওনেল মেসি। যেখানে দুয়ো শোনা এখন এই বিশ্বজয়ী ফরোয়ার্ডের জন্য একরকম স্বাভাবিক হয়ে গেছে। নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই সুর নরম করা প্যারিসিয়ানদের জার্সি গায়ে চাপিয়েছেন তিনি। পার্ক দ্য প্রিন্সেসের মাঠে যতবারই মেসির পায়ে বল গেছে, ততবারই তিনি ‘আল্ট্রাস’ সমর্থকদের দুয়ো শুনেছেন।

এদিন পিএসজি অ্যাজাক্সকে হারিয়েছে ৫-০ গোলের বড় ব্যবধানে। তবে আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড গোলে কোনো অবদান রাখতে পারেননি। ফ্রি-কিকসহ তার নেওয়া দুটো শটই অ্যাজাক্স রক্ষণে বাধা পেয়ে ফিরে এসেছে।

মেসি মাঠে থাকাবস্থায় সুয়ারেজের সঙ্গে নেইমারের কথোপকথনের স্ক্রিনশট পরে নিজেদের কথোপকথনের স্ক্রিনশট ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে শেয়ার করেছেন ব্রাজিল তারকা। যেখানে তিনি ক্যাপশনে লিখেছেন, ‘একসঙ্গে আমাদের বন্ধু লিওনেল মেসিকে দেখছি।’

পরে নেইমারের সেই পোস্টে নিজের প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন সুয়ারেজও। স্প্যানিশ ভাষায় সুয়ারেজ লিখেছেন, ‘আমি সব সময় গ্রেটদের সম্মান করি।’ তাঁর এই মন্তব্যের ইঙ্গিতটা স্পষ্ট—মেসি ফুটবল–বিশ্বে কতটা শ্রদ্ধার পাত্র, সেটাই পিএসজির সমর্থকদের মনে করিয়ে দিতে চাইলেন বার্সেলোনার সাবেক তারকা।

মেসিকে নিয়ে যখন পিএসজি সমর্থকরা এমন বিরূপ আচরণ করছেন, সেখানে ব্যতিক্রম বার্সেলোনার সমর্থকরা। প্রায় প্রতি ম্যাচেই তারা মেসির নামে স্লোগান দেন। ক্লাবটি যদিও বর্তমান পিএসজি তারকাকে দলে ভেড়ানোর প্রক্রিয়া শুরু করেছে, সেখানে বড় বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে দলটির অর্থনৈতিক অবস্থা ও লা লিগার আর্থিক নীতি। ফলে সেই কথা স্মরণ করিয়ে লা লিগা সভাপতি হাভিয়ের তেবাস মেসিকে ফেরানোর প্রক্রিয়া সহজ হবে না বলে জানিয়েছেন।

এদিকে ইতোমধ্যে বার্সাকে বিদায় বলে দিয়েছেন মেসির সাবেক সতীর্থ সার্জিও বুসকেটস। চলতি মৌসুম শেষেই তিনি বার্সা ছাড়বেন। এছাড়া আরও কয়েকজন ফুটবলারকে বিক্রির মাধ্যমে আর্জেন্টাইন অধিনায়ককে দলে ভেড়াতে প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে কাতালান ক্লাবটি। যদিও সম্প্রতি অনিয়মের দায়ে স্পেনের কর বিভাগ থেকে বেশ বড় অঙ্কের জরিমানার মুখে পড়েছে। অন্যদিকে, মেসিকে নিতে মুখিয়ে আছে সৌদি ক্লাব আল-হিলালও।

Check Also

বিদেশে নয় দেশের মাটিতেই বিয়ের পরিকল্পনা রকুল-জ্যাকির

সংবাদবিডি ডেস্ক ঃ রকুল প্রীত সিং ও জ্যাকি ভাগনানির বিয়ে ২১ ফেব্রুয়ারি। বিয়ের প্রস্তুতি এখন …