ভাষার জন্য ভালোবাসা

ফারহানা মিথিলা :-

ভাবতেই আনন্দ লাগে, আমরা সেই সৌভাগ্যবান জাতি যাদের রয়েছে ভাষার জন্য জীবন দেওয়ার ইতিহাস! পৃথিবীর অন্যতম শ্রুতিমধুর ভাষা হিসেবেও আমাদের বাংলা ভাষার রয়েছে স্বীকৃতি। এই ভাষায় রচিত অনন্য কবিতা, গান হয়েছে সমাদৃত। মায়ের কাছেই প্রথম আমরা এই ভাষায় কথা বলতে শিখি। তাইতো বাংলা আমাদের মাতৃভাষা। এই ভাষায়ই আমরা প্রথমবার ‘মা’ বলে ডেকে উঠি! এই ভাষাতেই জমা হয় আমাদের অভিমান, অভিযোগ।

নিজের ভাষাকে ভালো না বেসে কে থাকতে পারে! আপনি যতই অন্য ভাষার প্রতি আকর্ষণ বোধ করেন না কেন, ঠিকভাবে নিজের ভাষা না শিখতে পারলে পৃথিবীর কোথাও আপনার স্থান হবে না। কারণ যত ভাষাই শিখুন না কেন, মাতৃভাষা দিয়েই তা অনুভব করতে হবে। তাই একজন বাঙালি হলে সবার আগে বাংলা ভাষার শুদ্ধ ব্যবহার শিখতে হবে। শুধু শুদ্ধ বাংলায় কথা বলাই নয়, বাংলাকে ধারণ করতে হবে জীবনযাপনের প্রতিটি ক্ষেত্রে। ভাষার জন্য ভালোবাসা অন্তরে লালন করে করতে হবে কিছু কাজ-

কথা বলায়

এমন একটা সময়, কথার মধ্যে দুই-চারটি ইংরেজি ঠুসে না দিলে যেন ইজ্জত আর থাকে না যেন! কিন্তু যখন আপনি আরেকজন বাঙালির সঙ্গে কথা বলছেন এবং দুজনেই বাংলা বোঝেন, সেখানে ভিনদেশি ভাষার দরকারটা কী? নিজের ভাষায় কথা বলায় লজ্জার কিছু নেই। বরং সমৃদ্ধ শব্দ থাকার পরও যখন আপনি অপ্রয়োজনে ভিনদেশি ভাষা ধার করে আনছেন, তখন সেটি লজ্জার। অনেকে মনে করেন অন্য ভাষায় কথা বলতে পারাটাই আধুনিকতা। সত্যি বলতে, কোনো ভাষায় শিখতেই দোষ নেই। দোষ নেই সেসব ভাষায় কথা বলাতেও। কিন্তু নিজের ভাষাকে বাদ দিয়ে নয়। সবার আগে নিজের ভাষা শিখতে ও ব্যবহার করতে হবে শুদ্ধভাবে। এরপর অন্য সব ভাষা। তাই কথা বলার সময় নিজের ভাষাকে ভুলে যাবেন না।

পোশাকে

ভাবছেন, পোশাকের সঙ্গে ভাষার কী সম্পর্ক! পোশাকের সঙ্গেও ভাষার রয়েছে সম্পর্ক। এই যে একুশে ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস, এটি আমাদের শোক থেকে শক্তি যোগানোর দিন নয় কি? পোশাকে বর্ণমালা ধারণ করে আমরা ভাষার গৌরবের কথা জানান তো দিতেই পারি! শুধু একুশে ফেব্রুয়ারিতেই নয়, বর্ণমালায় সাজানো কিংবা নানা কবিতা, গানের কথা দিয়ে সাজানো পোশাক তো সারা বছরই পরা যায়। শাড়ির আঁচলে কিংবা পাঞ্জাবির জমিনে প্রিয় কবিতার কয়েক ছত্র থাকলে মন এমনিতেই ভালো থাকবে, খুলে যাবে ভাবনার আরও অনেক দরজা।

জীবনযাপনে

জীবনযাপনের সবগুলো ছন্দে থাকুক ভাষার জন্য ভালোবাসা। ছোট্ট যে শিশুটি কেবল কথা বলতে শিখছে তাকে শেখান শুদ্ধ ভাষা ও ভাষার ব্যবহার। তাকে টেলিভিশন খুলে অন্য ভাষার অনুষ্ঠান না দেখিয়ে বাংলার প্রতি আকৃষ্ট করুন। মজার মজার ছড়ার বই, গল্পের বই পড়তে দিন। ছবিতে বর্ণ পরিচয়ের বই কিনে দিন। একজন বইপ্রেমী হিসেবে গড়ে তুলতে চাইলে সেই অভ্যাস করতে হবে ছেলেবেলায়ই। বড়রাও কথা বলার সময় খেয়াল করুন, শিশু আপনাদের কাছ থেকে ভুলভাল কিছু শিখছে কি না। ভাষার ব্যবহারে সংযত হোন। গালাগালি কিংবা ভাষার অপব্যবহার থেকে বিরত থাকুন।

Check Also

পুত্রবধূর বিরুদ্ধে অভিযোগ নিয়ে থানায় নওয়াজউদ্দিনের মা

সংবাদবিডি ডেস্ক । পুত্রবধূর সঙ্গে সম্পত্তি নিয়ে অশান্তি। ঝগড়া না করে সোজা পুলিশের দ্বারস্থ হলেন …