গণপরিবহনে নৈরাজ্য বন্ধের দাবিতে মানববন্ধন

নিউজ ডেস্ক :জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে গণপরিবহনে নৈরাজ্য বন্ধের দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ গণ-ঐক্য নামের একটি সংগঠন। বৃহস্পতিবার দুপুরে আয়োজিত মানববন্ধন থেকে এ দাবি জানানো হয়।

মানববন্ধনে বক্তারা অভিযোগ করেন, বর্তমানে নগরীর পরিবহন ব্যবস্থায় চলছে ভয়াবহ নৈরাজ্যকর পরিস্থিতি। অধিকাংশ বাসে সিটিং সার্ভিসের নামে চলছে চিটিংবাজি। ঘণ্টার পর ঘণ্টা দাঁড়িয়ে থেকেও কোনো যানবাহন পাওয়া যায় না। ফলে বিশেষ করে নারীদের পক্ষে ভদ্রোচিতভাবে যাতায়াত করা কঠিন হয়ে পড়েছে।

বক্তারা আরও বলেন, “পাশাপাশি গণপরিবহনের ভাড়া নিয়ন্ত্রণহীনভাবে বাড়ছে। এছাড়া যত্রতত্র প্রাইভেট গাড়ি পার্কিং করায় ফুটপাত দিয়ে হেঁটে চলাচলও কঠিন হয়ে পড়েছে, বেড়ে গেছে দুর্ঘটনা।”

অভিযোগকারীরা বলেন, “বিআরটিসি’র আইনে সিটিং সার্ভিস বলে কিছু নেই, কিন্তু বাস মালিকরা প্রশাসনকে ম্যানেজ করে যাত্রী হয়রানির এই দুষ্কর্মটি নিয়মিতই চালিয়ে যাচ্ছেন। ফলে দুর্ভোগের স্বীকার হচ্ছেন সাধারণ মানুষ।”

এসব ব্যাপারে সরকার ও ঊর্ধতন কর্তৃপক্ষের লক্ষণীয় কোনো পদক্ষেপ না থাকায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন তারা।

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি আরমান হোসেন পলাশের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে আরও বক্তব্য রাখেন-জাতীয়তাবাদী দেশ বাঁচাও মানুষ বাঁচাও আন্দোলনের সভাপতি কে এম রকিবুল ইসলাম রিপন, সহ-সভাপতি নাজমুল হোসেন রনি, গণতন্ত্র রক্ষা মঞ্চের সমন্বয়ক মনোয়ার হোসেন বেগসহ আরও অনেকে।

Check Also

বিদেশে নয় দেশের মাটিতেই বিয়ের পরিকল্পনা রকুল-জ্যাকির

সংবাদবিডি ডেস্ক ঃ রকুল প্রীত সিং ও জ্যাকি ভাগনানির বিয়ে ২১ ফেব্রুয়ারি। বিয়ের প্রস্তুতি এখন …