মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রতি বিনীত অনুরোধ

আগামী ২৮ মার্চ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ফরিদপুর সফর করবেন। ঐদিন বেশ কিছু সরকারী কর্মসূচির পাশাপাশি তিনি বিকেলে রাজেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ মাঠে জনসভায় ভাষন দেবেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ফরিদপুর সফরকে ঘিরে ফরিদপুরবাসীর মনে নতুন আশার সঞ্চার হয়েছে। প্রস্তাবিত ফরিদপুর বিভাগ এবং ফরিদপুর সিটি কর্পোরশেন ঘোষণা নিয়ে ইতিমধ্যে নানামুখী জল্পনা-কল্পনা শুরু হয়েছে। ফরিদপুর জেলা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নিজ জেলা। জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর অনেক স্মৃতি জড়িয়ে রয়েছে এ জেলাতে। ফরিদপুর জেলার অধীন যখন গোপালগঞ্জ মহকুমা ছিল তখন বঙ্গবন্ধু অনেক রাজনৈতিক কর্মকান্ড ফরিদপুরে বসেই করতেন। যে কারণে স্বাধীনতার পর থেকেই নানাবিধ কারণে অবহেলিত এ জেলাটি। বিগত সরকারগুলোর আমলে উন্নয়ন কার্যক্রম থেকে বঞ্চিত ছিল ফরিদপুর জেলা। যদিও বর্তমান সরকারের শাসনামলে মাননীয় এলজিইডি মন্ত্রী উন্নয়নের রূপকার ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন চোখে পড়ার মত উন্নয়ন করেছেন। তাঁর হাতের ছোয়াঁতে পাল্টে গেছে ফরিদপুরের চিত্র। প্রতিনিয়ত মাননীয় মন্ত্রী চেষ্টা করে যাচ্ছেন উন্নয়নের মহাসড়কে ফরিদপুরকে যুক্ত করতে। একারণে মাননীয় এলজিইডি মন্ত্রীকে অভিবাদন জানায় ফরিদপুরবাসী। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ফরিদপুর সফরকে ঘিরে এ জেলাবাসীর প্রত্যাশা এখন অনেক বেশি। ফরিদপুর বিভাগ ঘোষণা ফরিদপুরবাসীর প্রাণের দাবী। এ দাবীতে জেলাবাসী দীর্ঘদিন যাবত আন্দোলন করে আসছে। তবে জোট সরকারের শাসনামসলে এদাবীকে অগ্রাহ্য করা হয়েছে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর বাড়ি ফরিদপুর বলে। সার্বিক যোগাযোগ ব্যবস্থার ভিত্তিতে দক্ষিণাঞ্চলের নাভি জেলা হচ্ছে ফরিদপুর। ফরিদপুর জেলার উপর দিয়েই দক্ষিণাঞ্চলের অধিকাংশ জেলার নাগরিকদের যাতায়াত করতে হয়। পদ্মা বহুমুখী সেতুর কারণেও ফরিদপুর জেলা অনেক গুরুত্বপুর্ণ। সার্বিক বিবেচনার দিক থেকে বৃহত্তর ফরিদপুরের ৫ জেলা তথা গোপালগঞ্জ,মাদারীপুর,শরীয়তপুর,রাজবাড়ি জেলার সমন্বয়ে ফরিদপুর বিভাগ ঘোষণা সময়ের দাবী। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আপনার কাছে স্বজন এবং আপনজন হিসেবে ফরিদপুরবাসীর প্রাণের দাবী ফরিদপুর কে বিভাগ ঘোষণা করা। আগামী ২৮ মার্চ এজেলাবাসী মুখিয়ে আছে এ ঘোষণা শোনার জন্য।
ওয়াহিদ মিল্টন
সম্পাদক ও প্রকাশক , দৈনিক ফরিদপুর কন্ঠ
প্রধান সম্পাদক, সংবাদ বিডি ডটকম

Check Also

বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী বীরউত্তম অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি

কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী বীরউত্তম অসুস্থ হয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল …