প্রশাসনে দায়িত্ব পালনে ৯ নারী সচিব

ডেস্ক রিপোর্ট :

বর্তমান সরকারের আমলে প্রশাসনে সচিব পদমর্যাদায় কাজ করছেন মোট ৭৮ জন কর্মকর্তা। তাদের মধ্যে ৭ জন নারী সচিব। ২ জন ভারপ্রাপ্ত সচিব। এই প্রশাসনে নারী সচিব ৯জন। এই ৯ নারী সচিবের একজন সুরাইয়া বেগম। বর্তমানে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন তিনি। সুরাইয়া বেগম সরকারের একজন সিনিয়র সচিব। এই পদে আসার আগে তিনি পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের অধীনস্ত পরিসংখ্যান ও তথ্যব্যবস্থাপনা বিভাগের সচিব, পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের অধীনস্ত বাস্তবায়ন, পরীবিক্ষণ ও মূল্যায়ন বিভাগের (আইএমইডি) সচিব, সমাজ কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব এবং সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিবের দায়িত্বও পালন করেন।

প্রশাসনের শীর্ষ এই পদে দায়িত্ব পালনের জন্য নিজেকে যোগ্য করে তুলতে হয়েছে বলে জানান সুরাইয়া বেগম (পরিচিতি নম্বর ১৩৫৫)। ১৬ কোটি মানুষের এই দেশে যে ৭৮ জন সচিব রয়েছেন তাদের একজন হওয়ায় গৌরব বোধ করেন বলেও তিন জানান। তিনি বলেন, ‘দায়িত্ব পালনের ক্ষেত্রে বিশ্বাস ও যোগ্যতা দিয়ে আস্থা রাখতে পেরেছি বলেই সরকার আমাকে এই পদে নিয়োগ দিয়েছে।’

শুধু সুরাইয়া বেগমই নন, প্রশাসনের সব নারী কর্মকর্তাই প্রশাসনের শীর্ষ পদে দায়িত্ব পালনের ক্ষেত্রে নিজেকে যোগ্য করে গড়ে তুলেছেন। সেভাবেই দায়িত্ব পালন করছেন। তারা সবাই প্রমাণ করেছেন, নারী হিসেবে বিশেষ কোনও সুবিধা পেয়ে নয়, নিয়মতান্ত্রিকভাবেই দক্ষতা, যোগ্যতা ও বিশ্বাস দিয়ে দায়িত্ব পালন করে সব পদ পেরিয়ে প্রশাসনের এই শীর্ষ পদে অধিষ্ঠিত হয়েছেন। প্রশাসনে এই ৭ জন নারী সচিবের পাশাপাশি আরও ২ জন নারী কর্মকর্তা রয়েছেন, যাদের ভারপ্রাপ্ত সচিবের পদমর্যদায় সরকারের গুরুত্বপূর্ণ বিভাগের প্রধানের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

সচিবের পদ মর্যদায় বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অধীন সংস্থা বাংলাদেশ ট্যারিফ কমিশনের চেয়ারম্যান মুশফেকা ইকফাৎ, তিনি সরকারের সিনিয়র সচিব (পরিচিতি নম্বর ২০০৭)। মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব নাছিমা বেগম (পরিচিতি নম্বর ১৬১১)। প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব বেগম সামছুন নাহার (পরিচিতি নম্বর ২১৩০)। সরকারি কর্মকমিশনের (পিএসসি) সচিব আক্তারী মমতাজ (পরিচিতি নম্বর ২৩৫৩)। সচিবের পদ মর্যদায় পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের অধীনস্ত পরিকল্পনা কমিশনের ভৌত অবকাঠামো বিভাগের সদস্য জুয়েনা আজিজ (পরিচিতি নম্বর ৩৫৪৮)। সচিবের পদ মর্যদায় পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের নিয়ন্ত্রণাধীন জাতীয় প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠান জাতীয় পরিকল্পনা ও উন্নয়ন একাডেমির মহাপরিচালক কানিজ ফাতেমা (পরিচিতি নম্বর ১৯৮৬)।

চলতি ২০১৭ সালের ৫ জানুয়ারি সরকারি এক আদেশ বলে তথ্য যোগাযোগ ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের নিয়ন্ত্রণাধীন বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) ও জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের নিয়ন্ত্রাণাধীন সংস্থা বাংলাদেশ কর্মচারী কল্যাণ বোর্ডের মহাপরিচালকের (ডিজি) পদটি দ্বিতীয় গ্রেড থেকে প্রথম গ্রেডে উন্নীত করা হয়েছে। এ দু’টি বিভাগে ভারপ্রাপ্ত সচিবের পদমর্যদায় সরকারের জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের অধীন সংস্থা বাংলাদেশ সরকারি কল্যাণ বোর্ডের মহা-পরিচালক (ডিজি) শিরিন আকতার (পরিচিতি নম্বর ২১৩৬) ও একই পদমর্যদায় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের নিয়ন্ত্রণাধীন বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) পদে হোসনে আরা বেগমকে (পরিচিতি নম্বর ২৫৬৯) নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব নাছিমা বেগম জানান, ‘কোনও বিশেষ সুবিধা নয়, সরকারের সব নিয়মনীতি অনুসরণ করেই এখানে আসীন হয়েছি। চাকরি জীবনের শুরুতে ১৯ বছর মাঠ পর্যায়ে ম্যাজিস্ট্রেট, টিএনওসহ নানা পদে দায়িত্ব পালন করেছি।’

সরকারের গুরুত্বপূর্ণ পদে থেকে দেশ ও জনগণের স্বার্থে অবদান রাখতে পারাকে গৌরব বোধ করছি বলেও জানান তিনি।

নাছিমা বেগম আরও বলেন, ‘শুধু প্রশাসনেই নয়, এমন কোনো সেক্টর নেই, যেখানে নারীদের বসানো হয়নি। এখন দেশের সর্বত্রই পুরুষের পাশাপাশি নারীরা যোগ্যতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করছেন।’ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন বর্তমান সরকারের আমলে ব্যাপকভাবে নারীর ক্ষমতায়ন করা হয়েছে বলেও তিনি মন্তব্য করেন।

Check Also

বিদেশে নয় দেশের মাটিতেই বিয়ের পরিকল্পনা রকুল-জ্যাকির

সংবাদবিডি ডেস্ক ঃ রকুল প্রীত সিং ও জ্যাকি ভাগনানির বিয়ে ২১ ফেব্রুয়ারি। বিয়ের প্রস্তুতি এখন …