মার্কিন নৌবাহিনীর অভ্যন্তরে ভয়াবহ যৌন নিপীড়নের অভিযোগ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

মার্কিন সেনাবাহিনীর অভ্যন্তরে আবারও ভয়াবহ যৌন নিপীড়নের অভিযোগ পাওয়া গেছে। সামাজিক যোগাযোগের জনপ্রিয় মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে যুক্তরাষ্ট্রের নারী নৌ সেনাদের বেশকিছু নগ্ন ও আপত্তিকর ছবি। প্রবীণ এক কর্মীর অভিযোগের ভিত্তিতে এ বিষয়ে তদন্ত করছে মেরিন কর্পস। ওই অভিযোগে বলা হয়, বাহিনীর সদস্যরাই তাদের নারী সহকর্মীদের এসব নগ্ন ছবি ছড়িয়ে দিয়েছে।

রবিবার মেরিন কর্পস টাইমসে এ সংক্রান্ত একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। এতে বলা হয়, এই ভয়াবহ কেলেঙ্কারির ঘটনায় ফেঁসে যেতে পারেন শতাধিক নৌ সেনা। বাহিনীর অভ্যন্তরেই নৌ সেনাদের অনেকে এমনভাবে যৌন নিপীড়নের শিকার হয়ে থাকেন। কেননা সহকর্মী নিপীড়কদের ব্যাপারে মুখ খুলতে ভয় পায় তারা। তবে মার্কিন কর্মকর্তারা বলছেন, ঘটনার শিকার ব্যক্তিদের সরবে এইসব নিপীড়নের ঘটনা প্রকাশ করা উচিত।

রবিবার দ্য ওয়াশিংটন পোস্টের খবরে বলা হয়, গ্রুপটিতে নারী নৌ সেনাদের নগ্ন ছবিতে ভরপুর একটি অনলাইন লিংক শেয়ার করা হয়। এমনকি এতে ছবির নারীদের নাম ও কাজের ইউনিটও উল্লেখ করা হয়। ২০১৭ সালের জানুয়ারিতে নৌবাহিনীর সাবেক একজন সদস্য গ্রুপে লিংকটি পোস্ট করেন। নৌবাহিনীতে তিনি একসময় ডিফেন্স কন্ট্রাক্টর হিসেবে কাজ করেছেন।

মার্কিন নৌবাহিনীর একজন ল্যান্স কর্পোরাল মারিসা ওয়টেক। তিনি জানান, ইন্সটাগ্রামে তার পোস্ট করা কিছু ছবি কোনও অনুমতি ছাড়াই গত ছয় মাসে বেশ কয়েকবার এই গ্রুপে শেয়ার করা হয়। অনলাইনে এভাবে যৌন হয়রানির শিকার হওয়ায় মেরিন কর্পসের ওপর আস্থা হারান তিনি।

মারিসা ওয়টেক বলেন, তার বহু নারী সহকর্মীকে একই ধরনের হয়রানির মুখে পড়তে হয়েছে। কিন্তু গ্রুপ মেম্বাররা প্রতিশোধপ্রবণ হয়ে উঠতে পারে, এমন আশঙ্কায় তারা এ নিয়ে কথা বলতে আগ্রহী হননি। তবে এখন তিনি এবং অন্যরা এ বিষয়ে মুখ খুলছেন।

মার্কিন নৌবাহিনীর একজন শীর্ষস্থানীয় কমান্ডান্ট জেনারেল রবার্ট নেলার। তিনি বলেন, প্রত্যেক নৌ সেনার সাফল্যের মূলে রয়েছে পারস্পরিক আস্থা ও সম্মানবোধ। আমার প্রত্যাশা দায়িত্ব পালনরত অবস্থায়, দায়িত্বের বাইরে থাকা অবস্থায় এবং অনলাইনে নৌ সেনারা সর্বোচ্চ সততা ও আনুগত্য দেখাবেন। সূত্র: ইউএসএ টুডে।

Check Also

বিদেশে নয় দেশের মাটিতেই বিয়ের পরিকল্পনা রকুল-জ্যাকির

সংবাদবিডি ডেস্ক ঃ রকুল প্রীত সিং ও জ্যাকি ভাগনানির বিয়ে ২১ ফেব্রুয়ারি। বিয়ের প্রস্তুতি এখন …