ধর্মঘট প্রত্যাহারের ঘোষণা

ডেস্ক রিপোর্ট : 

সারাদেশে চলমান পরিবহন ধর্মঘট প্রত্যাহারের ঘোষণা দেয়া হয়েছে। বুধবার দুপুরে মতিঝিলের সড়ক ভবনে পরিবহন শ্রমিক নেতাদের নিয়ে বৈঠক শেষে এ সিদ্ধান্তের কথা জানান নৌমন্ত্রী শাজাহান খান।

এর আগে পরিবহন ধর্মঘট নিয়ে বাস মালিক ও শ্রমিকদের সঙ্গে আলোচনায় বসেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, আইনমন্ত্রী আনিসুল হক এবং নৌমন্ত্রী শাজাহান খান। সরকারের তিন মন্ত্রীর সঙ্গে এ বৈঠকে ধর্মঘট প্রত্যাহার করে নেয় মালিক-শ্রমিকরা।

সকালে নৌ-পরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খানসহ চারজন মন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করেন বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন সমিতির সাধারণ সম্পাদক খন্দকার এনায়েতুল্লাহ খান। বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, নৌমন্ত্রী শাজাহান খান, শ্রম প্রতিমন্ত্রী মশিউর রহমান রাঙা, আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।

বুধবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে সচিবালয়ে ওবায়দুল কাদেরর দফতরে পরিবহন ধর্মঘটের বিষয়ে রুদ্ধদ্বার এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

বৈঠক শেষে ওবায়দুল কাদের সাংবাদিকদের বলেন বলেন, ‘আমরা বৈঠকে বসেছিলাম। ধর্মঘটের বিষয়ে আলোচনা করেছি। এখন শ্রমিক নেতাদের সঙ্গে বসে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে হবে। এ জন্য আমরা পরিবহন মালিক নেতা খন্দকার এনায়েতুল্লাহ খানের অফিসে একটি বৈঠক করবো।’

প্রসঙ্গত, মানিকগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় চলচ্চিত্রকার তারেক মাসুদ, সাংবাদিক মিশুক মুনীরসহ পাঁচজন নিহত হন। ওই ঘটনায় দায়ের করা মামলায় বাসচালক জামির হোসেনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশ দেন আদালত। এদিকে, আরেকটি মামলায় সোমবার ঢাকা জেলার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ ২০০৩ সালে সাভারে ঘটা একটি ঘটনায় ট্রাক চালক মীর হোসেন মীরুকে মৃত্যুদণ্ডাদেশ দেন।

এ দুই রায়ের প্রতিবাদে মঙ্গলবার থেকে সারাদেশে অনির্দিষ্টকালের পরিবহন ধর্মঘটের ডাক দেন শ্রমিকরা। এতে চরম দুর্ভোগের শিকার হন সাধারণ মানুষ। ধর্মঘটের কারণে কার্যত বন্ধ হয়ে যায় রাজধানীসহ দেশের যোগাযোগ ব্যবস্থা। দূরপাল্লার পাশাপাশি স্বল্প দূরত্বেও বাস চলাচল বন্ধ থাকায় চরম বিপাকে পড়েছে মানুষ।

ধর্মঘটকে কেন্দ্র করে বুধবার গাবতলীতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে পরিবহন শ্রকিদের দফায় দফায় সংঘর্ষও হয়েছে। সংঘর্ষে একজন গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত হয় একজন বাসচালক।

Check Also

বিদেশে নয় দেশের মাটিতেই বিয়ের পরিকল্পনা রকুল-জ্যাকির

সংবাদবিডি ডেস্ক ঃ রকুল প্রীত সিং ও জ্যাকি ভাগনানির বিয়ে ২১ ফেব্রুয়ারি। বিয়ের প্রস্তুতি এখন …