১১ বছরের সম্পর্কের ইতি টানলেন দিয়া মির্জা

বেশ কিছু দিন ধরেই কানাঘুষা শোনা যাচ্ছিলো বলিউড তারকা দিয়া মির্জার বিচ্ছেদের ব্যাপারে। অবশেষে ১ আগস্ট বৃহস্পতিবার আনুষ্ঠানিক ঘোষণার মধ্য দিয়ে ১১ বছরের সম্পর্কের ইতি টানলেন অভিনেতা দিয়া মির্জা ও সাহিল সংঘ।

সোশ্যাল মিডিয়ায় দেয়া যৌথ বিবৃতিতে দিয়া মির্জা লিখেছেন, ‘১১ বছর আমাদের জীবন ভাগাভাগি করে একসঙ্গে থাকার পরে, আমরা যৌথভাবে বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আমরা বন্ধু থাকবো এবং ভালোবাসা ও শ্রদ্ধার সঙ্গে একে অপরের পাশে থাকবো।’
দিয়া আরও বলেন, ‘আমাদের এই যাত্রায় দুজনের পথ আলাদা হবে, তবে আমরা একে অপরের এই বন্ধনের জন্য চির কৃতজ্ঞ থাকবো। আমাদের পরিবার এবং বন্ধুদেরকে পাশে থাকার জন্য এবং বোঝার জন্য ধন্যবাদ। মিডিয়ার সাপোর্টের জন্যও ধন্যবাদ এবং অনুরোধ করবো আমাদের প্রাইভেসিটাকে সম্মান করার জন্য। এই ব্যাপারে আমরা আর কোনো মন্তব্য করবো না। ধন্যবাদ। দিয়া মির্জা এবং সাহিল সংঘ।

সাহিল পেশায় একজন সিনেমা নির্মাতা। দিয়া মির্জার সঙ্গে তিনি একটি প্রোডাকশন কোম্পানি খুলেছেন। যে কোনো পার্টি কিংবা রেড কার্পেটে তাদের সবসময়ে একসঙ্গেই দেখা যেত। স্ক্রিপ্ট পড়ার সময় তাদের পরিচয় হয়। ২০১৪ সালে সাহিল নিউইয়র্কের ব্রুকলিন ব্রিজে হাঁটু গেঁড়ে বসে দিয়া মির্জাকে বিয়ের জন্য প্রস্তাব দেন। দিয়া মির্জা তখনই প্রস্তাব গ্রহণ করে বিয়েতে সম্মতি দেন। ২০১৪ সালেই দিল্লির একটি ফার্ম হাউসে দিয়া ও সাহিলের বিয়ে হয়।

Check Also

আগামী মাসেই আবরার হত্যা মামলার চার্জশিট: মনিরুল

শিবির সন্দেহেই বুয়েট ছাত্র আবরার ফাহাদকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন ডিএমপির কাউন্টার টেরোরিজম …