সারাদিন ক্ষুধা লাগে? সমাধান কী?

অনেক মানুষই এমন আছেন যাদের কিছুক্ষণ পর পর খেতে ইচ্ছা করে। অনেক সময় এমন দেখা যায় যে খাবার মুখে না থাকলে অস্বস্তিতে ভুগছেন তিনি। সবসময় ক্ষুধা লাগার এই সমস্যাকে রিওয়ার্ড ডেফিসিয়েন্সি সিন্ড্রোম বা আরডিএস বলে।

ভালো খাবার খেলে আমাদের মস্তিষ্কে ডোপামিন নামক হরমোনের ক্ষরণ হয়। একারণেই আমরা আনন্দিত অনুভব করি। ডোপামিন ক্ষরণের এই রীতিকে আরডিএস বলে। মনোবিদরা বলছেন, যখন মানুষ পুষ্টির প্রয়োজন বা যা খিদে তার থেকে বেশি খাচ্ছেন মানে তিনি পরিতৃপ্তি অর্জনের চেষ্টা করছেন।

আরডিএস কেন হয়

সাইকোলজি টুডে নামক আন্তর্জাতিক স্বাস্থ্য বিষয়ক জার্নালে বলা হয় এই অসুখে আক্রান্তদের মস্তিষ্কে আরডিএস গ্রন্থির পরিমাণ কম। অর্থাৎ বেশকিছু আবেগ উচ্ছ্বাস তাকে সেই পরিতৃপ্তি দিতে পারে না এবং হরমোন ক্ষরণ কম হয়। কিন্তু তিনি তা খাবার থেকে পান। আবার বিভিন্ন মুহূর্তে ডোপামিন স্বাভাবিক পরিমাণ ক্ষরিত না হলে মনও ভালো থাকে না। এই জন্যই তারা বাধ্য হয়ে বারবার খান।

কমাবেন যেভাবে

আরডিএস কমাতে কাজ করতে হবে নিজেকেই। নিজের রাগ, দুঃখ, অভিমান সব আবেগকেই কাজ করতে দিতে হবে। মনোবিদদের মতে, নিজের ভুল চিহ্নিত করতে পারা মাত্রই সচেতন হতে শুরু করুন। নিজেকে নিয়মিত অন্য নানা পুরষ্কার দিন। প্রিয়জনের সঙ্গে ফোনে কথা বলুন কিংবা কাছে কোথাও ঘুরে আসুন যা আপনার সচেতন মনকে পরিতৃপ্ত করতে পারে এবং ডোপামিন বা সুখী হরমোন ক্ষরণ বাড়াতে পারে।

Check Also

সব তাল ঠিক রাখতে গিয়ে সমালোচনা কুড়াচ্ছেন কলকাতার নায়িকা নুসরাত জাহান

সম্প্রতি শেষ হওয়া ভারতের লোকসভা নির্বাচনে বিজয়ী হওয়ার পর সিদ্ধান্ত নেন বিয়ের। পাত্র প্রেমিকা লিখিল …