রাজধানীতে এখনো চুক্তিতেই চলছে বাস

পরিবহন মালিকরা চুক্তির বদলে দৈনিক বেতনে বাস চালানোর সিদ্ধান্ত নিলেও তা এখনো কার্যকর হয়নি রাজধানীর অধিকাংশ গণপরিবহনে। এখনো চুক্তিতে বা ট্রিপ ভিত্তিতে চলছে বেশিরভাগ বাস। অতিরিক্ত লাভের আশায় বেপরোয়া গতিতে বাস চালান চালকরা। ফলে দুর্ঘটনা যেমন ঘটছে, তেমনি যাত্রীদের সাথে বাকবিতন্ডাও হয় প্রায়ই।

বিআরটিসির এই বাস মোহাম্মদপুর থেকে বাড্ডা হয়ে প্রগতি সরণী পর্যন্ত চলাচল করছে দৈনিক ৯ হাজার টাকার চুক্তির বিনিময়ে। রাজধানীতে বিআরটিসির প্রায় সব বাস চলছে এমন চুক্তিতে।

শুধু বিআরটিসি নয় রাজধানীর বেশিরভাগ পরিবহন প্রতিষ্ঠানের বাস চলে চুক্তি বা ট্রিপ ভিত্তিক। যেসব বাস সিটিং হিসেবে চলছে, সেগুলোর চালক-শ্রমিকরা ট্রিপ হিসেবে বেতন পাচ্ছেন। আর লোকাল হিসেবে চলছে, সেগুলো আগের মতোই নির্ধারিত জমা বা বাস মালিকের সঙ্গে অলিখিত চুক্তিতে চলছে। এর উপর রয়েছে বিভিন্ন স্থানে সড়কে চাঁদা, জ্বালানি খরচ ও সহাকারীর খরচ।

চুক্তির কারণে চালকরা বেশি ট্রিপ দিয়ে বেশি যাত্রী বহন করতে চায়। এতে সড়কে বাস চালানোয় এক ধরনের প্রতিযোগিতা শুরু করেন চালকরা। বাস মালিকদের চুক্তির বদলে বেতন দিয়ে চালক ও সহকারী রাখার অঙ্গীকার করলেও তা না মানায় তাদের সতর্ক করেছেন ঢাকা মেট্রপলিটন পুলিশ কমিশনার।

চালকদের বেতনের আওতায় এনে সড়কে বাসের প্রতিযোগিতা বন্ধের আহ্বান জানান ডিএমপি কমিশনার।

Check Also

স্প্যনিশ লিগ ফুটবলে আজ মুখোমুখি বার্সেলোনা ও অ্যাটলেটিকো

ক্রীড়া ডেস্ক: স্প্যনিশ লিগ ফুটবলে রাতে আলাদা ম্যাচে মাঠে নামছে দুই স্প্যানিশ জায়ান্ট বার্সেলোনা এবং …