এরশাদের অবর্তমানে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের

নিজের অবর্তমানে দলের কো-চেয়ারম্যান জিএম কাদেরকে চেয়ারম্যান ঘোষণা করছেন সাবেক রাষ্ট্রপতি জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও বিরোধী দলীয় নেতা হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। শুক্রবার রাতে এক সাংগঠনিক নির্দেশে তিনি এ ঘোষণা দেন।
সাংগঠনিক নির্দেশে জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেন, নিজের অবর্তমানে বা চিকিৎসাধীন অবস্থায় বিদেশে থাকাকালীন দলের কো-চেয়ারম্যান জিএম কাদেরকে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ঘোষণা করছি।
এর আগে গত ৪ এপ্রিল জিএম কাদেরকে জাতীয় পার্টির (জাপা) কো-চেয়ারম্যান পদে পুনর্বহাল করা হয়। এদিন পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ স্বাক্ষরিত গণমাধ্যমে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

২২ মার্চ জিএম কাদেরকে কো-চেয়ারম্যান পদ থেকে সরিয়ে দেন এরশাদ। পরে সংসদে বিরোধীদলীয় উপনেতার পদ থেকেও সরিয়ে দেয়া হয় তাকে। ১৩ দিনের মাথায় জিএম কাদেরকে স্বপদে বহাল করা হয়। এর আগে বুধবার পার্টির রংপুর বিভাগের নেতারা জিএম কাদেরকে পুনর্বহালে এরশাদকে ৫ এপ্রিল পর্যন্ত সময় বেঁধে দিয়েছিলেন।

জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য জিএম কাদেরকে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান করার দাবিতে বুধবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে মানববন্ধন করে জাতীয় পার্টি ঐক্যজোট ও তৃণমূল জাতীয় পার্টি। সেখানে নেতাকর্মীরা দাবি করেন, ‘উত্তরবঙ্গের অহঙ্কার, মিস্টার ক্লিন ম্যান খ্যাত জিএম কাদেরের মতো পরিচ্ছন্ন মানুষকে জাতীয় পার্টির সর্বোচ্চ দায়িত্বে দেখতে চাই। দেশের শান্তির জন্য জাতীয় রাজনীতিতে ভালো মানুষের বিকল্প নেই।’

এ সময় নেতাকর্মীরা বলেন, এরশাদ জেলে গেলে জাতীয় পার্টির দুঃসময়ে জিএম কাদের চাকরি থেকে অব্যাহতি নিয়ে নেতাকর্মীদের পাশে এসে ছায়া হয়ে দাঁড়ান। পরে শেখ হাসিনার মহাজোট আমলে মন্ত্রী হয়েও তিনি অতি সাধারণ জীবনযাপন করেছেন। নীতি-আদর্শে সফলতার সঙ্গে রাষ্ট্রের দায়িত্বও পালন করেছেন। তাই তৃণমূলের দেয়া সময়ের মধ্যে দলের আগামী দিনের অভিভাবক জিএম কাদেরকে কো-চেয়ারম্যান পদে পুনর্বহাল করতে হবে।

সমাবেশ শেষে জিএম কাদেরকে জাতীয় পার্টির কো-চেয়ারম্যান পদে ফিরিয়ে আনার দাবি জানিয়ে পার্টির চেয়ারম্যানের সঙ্গে একান্ত বৈঠক করেন রংপুর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ও দলটির প্রেসিডিয়াম সদস্য মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা। এরশাদের বারিধারার বাসভবন প্রেসিডেন্ট পার্কে রংপুরের নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করেন এরশাদ।

বৈঠক শেষে মেয়র মোস্তফা বলেন, আমার সঙ্গে একান্তে চেয়ারম্যানের আট মিনিট কথা হয়েছে। স্যার (এরশাদ) আমাকে বলেছেন, তুমি যখন বলছো, করে দেব। আমার ধারণা, দুই-একদিনের মধ্যেই কাদের ভাইকে (জিএম কাদের) কো-চেয়ারম্যান পদে বহাল করা হবে। তিনি আরও বলেন, কিছু দালাল স্যারকে কাদের ভাই সম্পর্কে বিভ্রান্ত করেছে। ৫ তারিখের মধ্যে ব্যবস্থা না হলে ৬ এপ্রিল গণপদত্যাগ হবে। রংপুরের আট জেলায় কোথাও জাতীয় পার্টির কোনো কর্মসূচি পালন করতে দেয়া হবে না।

এরই পরিপ্রেক্ষিতে জিএম কাদেরকে কো-চেয়ারম্যান পদে পুনর্বহাল করার আশ্বাস দেন পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ।

Check Also

সব তাল ঠিক রাখতে গিয়ে সমালোচনা কুড়াচ্ছেন কলকাতার নায়িকা নুসরাত জাহান

সম্প্রতি শেষ হওয়া ভারতের লোকসভা নির্বাচনে বিজয়ী হওয়ার পর সিদ্ধান্ত নেন বিয়ের। পাত্র প্রেমিকা লিখিল …