শিরোনাম

দাপটে জয়ের পর যা বললেন মাশরাফি

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) চলতি আসরের ষষ্ঠ ম্যাচে ৪ ওভারে ১১ রানে ৪ উইকেট তুলে নিয়ে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সকে প্রায় একাই গুড়িয়ে দিয়েছেন রংপুর রাইডার্সের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। বয়স ৩৫ পেরিয়ে ৩৬ বছরে পা দিয়ে ক্যারিয়ারের প্রায় শেষ বেলায় দাঁড়িয়েও এমন দাপটে পারফরমেন্স দিয়ে বিশ্ব ক্রিকেটে মুগ্ধতা ছড়িয়ে যাচ্ছেন।

মঙ্গলবার দেশের সেরা ব্যাটসম্যান তামিম ইকবালকে ফিরিয়ে শুরু। চার ওভারের টানা স্পেলে পরে নিয়েছেন ইমরুল কায়েস, এভিন লুইস ও স্টিভেন স্মিথের উইকেট।
সবাই যখন মাশরাফি’র মুখে ‘শেষ’ শব্দটা শোনার অপেক্ষায়, ঠিক তখনই যেন আগ্নেয়গিরির মতো মাশরাফি জ্বলে উঠছেন বারবার। মাশরাফির আসলে শেষ কোথায়? এই প্রশ্নটার উত্তরে মাশরাফির সোজা উত্তর, শেষ বলতে কিছু নেই। যেদিন মনে হবে আমি আর পারছি না সেদিনই শেষ বলে দিব।

ক্যারিয়ারের শেষ বেলায় এসে ক্রিকেট ছাড়ার আগেই অংশ নিয়েছেন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে। এখানেও পেয়েছেন সাফল্য। গত মাসে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ খেলে নির্বাচনের জন্য গিয়েছিলেন নিজের শহর নড়াইল-২ আসনে। দীর্ঘ ১১ দিন ধরে ছিল না কোনো প্রস্তুতি। সেখান থেকে এসে নতুন রুটিন গণভবন আর মিরপুরের একাডেমী মাঠ। তবুও খেলায় তার ছাপ নেই।

গত কিছুদিনে রাজনীতি ও ক্রিকেট দুই ক্ষেত্রেই ছুটোছুটি করতে হয়েছে ক্রমাগত। সামলাতে হয়েছে দুই আঙিনা। এই কঠিন সময় থেকে একটি শিক্ষা পেয়েছেন মাশরাফি বিন মুর্তজা, কিভাবে বর্তমানে থাকতে হয় শক্তভাবে।

মাশরাফি বলেন, ‘সাম্প্রতিক সময়ে আমি একটা জিনিস ভালো শিখেছি যে, বর্তমান সময়ে স্ট্রং থাকার ব্যাপারটা। কদিন আগে নির্বাচন শেষ করে ঢাকায় ফেরা এরপর অল্প সময় পেয়েছি মাঠে আসার। তবে সবকিছুর পরও ফোকাস রেখেছিলাম, বিপিএলের প্রথম ম্যাচ থেকে খেলার। মানসিকভাবে তৈরি ছিলাম বলেই খেলতে পারছি।’

দীর্ঘ ১৩ মাস পর টি-টোয়েন্টি খেলতে নেমে রংপুর রাইডার্সের হয়ে এবারের আসরে প্রথম দুই ম্যাচে ৫৯ রান দিয়ে নিয়েছিলেন ৩ উইকেট। বুধবার সন্ধ্যায় টস জিতে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানসের অধিনায়ক স্টিভ স্মিথ ব্যাটিংয়ে নেমে রংপুর অধিনায়কের বোলিং তোপে পড়ে। ৪ ওভারেই ভেঙে যায় কুমিল্লার টপ-অর্ডার। প্রথমে তামিম, এরপর ইমরুল কায়েস, এভিন লুইস আর স্টিভ স্মিথকে ফিরিয়ে কুমিল্লাকে ধসিয়ে দেন মাশরাফি।

এ বিষয়ে মাশরাফি বলছেন, প্রথম বলটা করার পর আমার কাছে মনে হচ্ছিল যে উইকেটে ডাবল পেস হবার সুযোগ আছে। তখনই ভাবছিলাম যে, একটু চেষ্টা করলে বোধহয় ভালো কিছু পাওয়া যেতে পারে এই উইকেট থেকে। আমাদের সৌভাগ্য যে দ্রুত উইকেট নিতে পেরেছি। কিন্তু আমার কাছে মনে হয়, উইকেট নেয়ার চাইতেই সঠিক জায়গায় বল করতে পারাটা।

প্রথম দুই ম্যাচে ৩ উইকেট পাওয়ার পর কুমিল্লার বিপক্ষে ১১ রান দিয়ে নিয়েছেন ৪ উইকেট। ঘরোয়া ও আন্তর্জাতিক ক্রিকেট মিলে যা কি না মাশরাফির টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে ক্যারিয়ার সেরা বোলিং।

Check Also

গাজীপুরে ১১ ঝুট গুদামে আগুন

গাজীপুর সিটি করপোরেশনের দেওয়ালিয়াবাড়ি এলাকায় ১১টি ঝুট গুদামে আগুন লাগার ঘটনা ঘটেছে। বুধবার (২০ ফেব্রুয়ারি) …