অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রীর বাড়িতে অতিথি ভারতীয় দল, সঙ্গে ছিলেন আনুশকাও

চার ম্যাচ টেস্ট সিরিজের চতুর্থ ও শেষ টেস্টটি মাঠে গড়াবে ৩ জানুয়ারি। তার আগে নতুন বছরের প্রথম দিন ভারতীয় দল সময় কাটাল সিডনির কিরিবিলি হাউসে।

অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসনের আমন্ত্রণে তার বাসভবনে উপস্থিত হয় বিরাট কোহলির দল। এই দলে কোচ ও সাপোর্ট স্টাফদের সঙ্গে ছিলেন অধিনায়ক কোহলির স্ত্রী বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী আনুশকা শর্মাও। শুধু তাই নয়, প্রধানমন্ত্রীর বাড়িতে এদিন অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিল অস্ট্রেলিয়া জাতীয় ক্রিকেট দলও।

বিরাট কোহলি-আজিঙ্কা রাহানেরা এদিন সাদা শার্ট ও ধূসর রঙের হাতাকাটা কোট পড়েছিলেন। ব্যতিক্রম ছিলেন হার্দিক পান্ডে, ঋষভ পান্ত ও উমেশ যাদভ। এই তিনজন নেভি ব্লু রঙের টিম ব্লেজার পড়েন। তবে স্পটলাইটটা ছিল কোহলিপত্নী আনুশকার দিকেই। মিষ্টি রঙের পোশাকে এদিন তাকে বেশ মিষ্টিই লাগছিল।

ভারতীয় কোচও অবশ্য নজর কেড়েছেন। সাদা রঙের শার্ট ও ধূসর রঙের কোটের পাশাপাশি তার মাথায় ছিল হ্যাট। অন্যদিকে অস্ট্রেলিয়া দলের খেলোয়াড়রা প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনে উপস্থিত হয়েছিলেন জার্সি পরেই।

ভারতীয় দলের খেলোয়াড়দের মধ্যে শুধুমাত্র রোহিত শর্মাই এদিন উপস্থিত ছিলেন না। সদ্যই বাবা হওয়ার স্বাদ পেয়েছেন এই তারকা ক্রিকেটার। রোহিতের স্ত্রী রীতিকা সজদে জন্ম দিয়েছে এক কন্যা সন্তানের। পরিবারের পাশে থাকতেই রোহিত মেলবোর্ন থেকে দেশে ফিরে যান।

অজি প্রধানমন্ত্রীর সামনে এদিন দুই অধিনায়কই বক্তব্য রাখেন। টিম পেইন বলেন, ‘যে রকম স্পিরিট নিয়ে এবং প্রতিদ্বন্দ্বিতার সঙ্গে তোমরা (ভারতীয় দল) এই সিরিজে খেলছ, তা অস্ট্রেলিয়ার মানুষকে ফের ক্রিকেট মাঠে টেনে এনেছে। তাদের ক্রিকেট প্রেম ফিরিয়ে এনেছে।’

কোহলি তার বক্তব্যে বলেন, ‘এখানে আসতে পারাটাই একটা বিরাট সম্মান। এখানে এসে অস্ট্রেলিয়াকে খেলাটা ক্রিকেট বিশ্বের সব চেয়ে কঠিন চ্যালেঞ্জ। শুধু যে অস্ট্রেলিয়া টিমের বিরুদ্ধেই আমরা খেলছি, তা নয়। ব্যাট করতে যখন মাঠে নামবে, তখন পুরো স্টেডিয়াম তোমাকে আউট করতে চাইছে।’

‘অস্ট্রেলিয়ার খেলাধুলোর সংস্কৃতি বা ক্রিকেট সংস্কৃতি এ রকমই। হারতে চায় না কেউ। তাই আমি ছেলেদের বলেছি, এখানে এসে তিনটি টেস্টে তোমরা যে রকম ক্রিকেট খেলেছ, তাতে গর্বিত হওয়া যায়। আমার মনে হয়, স্কোরলাইন যা-ই বলুক দু’টো দলই গর্বিত হতে পারে দারুণ উপভোগ্য ক্রিকেট উপহার দেওয়ার জন্য,’ যোগ করেন কোহলি।

৩ ডিসেম্বর, বৃহস্পতিবার সিডনিতে অজিদের মুখমুখি হবে ভারত। মেলবোর্ন টেস্ট জিতে নিয়ে চার ম্যাচের সিরিজে ২-১ ব্যবধানে এগিয়ে রয়েছে কোহলির দল। এই সিরিজ জিতলেই প্রথমবারের মতো অজিদের তাদের ঘরের মাটিতে টেস্ট সিরিজ হারানোর স্বাদ পাবে ভারত।

Check Also

সব তাল ঠিক রাখতে গিয়ে সমালোচনা কুড়াচ্ছেন কলকাতার নায়িকা নুসরাত জাহান

সম্প্রতি শেষ হওয়া ভারতের লোকসভা নির্বাচনে বিজয়ী হওয়ার পর সিদ্ধান্ত নেন বিয়ের। পাত্র প্রেমিকা লিখিল …